বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বিজয় দিবসে দেশের সব মানুষকে শপথ করাবেন প্রধানমন্ত্রী শ্রীলেখার খোলামেলা ফটোশুটের ভিডিও ভাইরাল জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ১০নং হরিশংকরপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদ যশোরে অন্ত:স্বত্তা স্ত্রী হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদন্ড যশোরে ৬ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু যশোরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু খাজাঞ্চি পশ্চিম ইউনিয়ন আল ইসলাহ’র কমিটি: সভাপতি মোসাদ্দিক সম্পাদক নিজাম বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিশ্বনাথে লার্ণিং পয়েন্টের ১৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন চাঁদপুরে আনসার ভিডিপির বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা যুক্তরাজ্য থেকে ব্যারিস্টার ডিগ্রি অর্জন ক‌রে সাড়া ফেল‌লেন নাগরপু‌রের

কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে যশোর প্রসাশন

শাহারুল ইসলাম ফারদিন / ১৮৭ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১, ৬:৪০ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বুধবার মধ্যরাত থেকে যশোর ও নওয়াপাড়া পৌরসভায় সাত দিনের কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়েছে। এই বিধিনিষেধ চলবে ১৬ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। বন্ধ রয়েছে দোকানপাট ও লোকাল রুটের বাস চলাচল। তবে দূরপাল্লা ও আন্তঃজেলা গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা যায়। সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন প্রবেশ মুখে ঘোষিত বিধি নিষেধ প্রতিপালনে প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা লক্ষ করা গেছে। বিপনী বিতান, পার্ক, কমিউটিনি সেন্টার, সভা সমাবেশ সব বন্ধ রয়েছে। মোটরসাইকেল ও রিকশায় একজন এবং অটোরিকশায় দুইজনের বেশি চলাচল করতে দেয়া হচ্ছে না।

শহরে মাইকিং করে সকলকে মাস্ক ব্যবহারসহ স্বাস্থ্য বিধি প্রতিপালন এবং জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে। সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত কেবল কাচাবাজার ও নিত্যপন্যের দোকান খোলা থাকবে। তবে ওষুধ, খাদ্যসহ জরুরী পরিসেবার যান চলাচল করতে পারবে।

এর আগে, যশোর পৌরসভা ও নওয়াপাড়া পৌরসভায় করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে জেলা প্রশাসন। জানা যায়, আজও যশোরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনক। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৪৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর আগে বুধবার আক্রান্ত হয় ১৫২ জন।

বৃহস্পতিবার সকালে যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী সায়েমুজ্জামান জানান, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। ঊর্ধ্বমুখী এ হার রুখতে বুধবার মধ্যরাত থেকে যশোর পৌরসভা ও নওয়াপাড়া পৌরসভায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, বিধিনিষেধের প্রথম দিন প্রশাসন থেকে বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। যশোর পৌর এলাকায় ১৩টি ফিডার রোড এই দিনগুলোর জন্য বন্ধ করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এর আওতায় ঢাকা রোড (বারান্দিপাড়া), ডিআইজি রোড, পলিটেকনিক রোড, ঘোপ বাবলা তলা, পুরাতন কসবা চুয়াডাঙ্গা স্ট্যান্ড বাইলেন, পুরাতন কসবা লিচু তলা রোড, ধর্মতলা মোড়, চাঁচড়া বাজার, যশোর কলেজ রোড, সন্যাসি দিঘির পাড়, শংকরপুর বটতলা, শংকরপুর বাবলা তলা ও বেজতলা মেইন রোড, বিআরটিএ অফিসের সামনের রাস্তা বন্ধ করা হয়েছে।’

জেলা প্রশাসক জানান, যশোর শহরে দশটি চেকপোস্ট স্থাপন করা হয়েছে। এসব চেকপোস্টে পুলিশের একজন এসআই, একজন এএসআই, চারজন কনস্টেবল ও দুজন আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। সাতজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে এসব চেকপোস্ট এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। একজন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে র‍্যাবেরও একটি টিমও মাঠে রয়েছে।’

উল্লেখ্য, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে যশোরের বিভিন্ন পুলিশ চেকপোস্টে প্রসাশনকে সর্বতভাবে সহযোগিতা করতে দেখা গেছে যশোর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের করোনা প্রতিরোধ কমিটির স্বেচ্ছাসেবক দলকে।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com