শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

চিলমারীর নৌরুটে ভাড়া বেশি, মানুষের ভোগান্তি

স্টাফ রিপোর্টার / ৭৩ বার
আপডেট সময় সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১

হীমেল মিত্র অপুঃ পবিত্র ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে চিলমারী-রৌমারী ও রাজীবপুর নৌ-যাতায়াত পথে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে ঘাট ইজারাদারদের বিরুদ্ধে। সিরিয়ালের নৌকা বন্ধ রেখে ফাঁদ পেতে অতিরিক্তি টাকা ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এতে নৌকা প্রতি শতাধিক যাত্রী বাড়তি ভাড়া গুনে গাদাগাদি করে পারাপার হচ্ছে।

জানাগেছে, কুড়িগ্রামের চিলমারী-রৌমারী ও রাজীবপুর নৌ-যাতায়াত পথে ৫০ টাকা ভাড়ার স্থলে নেয়া হচ্ছে জনপ্রতি ২’শ টাকা করে। একটি মটর সাইকেল সহ একজন যাত্রীকে গুনতে হচ্ছে ৩শ টাকা। যা আগের তুলনায় ৪ গুন বেশি। মটর সাইকেল যোগে কুড়িগ্রাম ফেরা যাত্রী রাকিন’কে সস্ত্রীক রৌমারী-চিলমারী পারাপার হতে নৌকা ভাড়া গুনতে হয়েছে ৭’শ টাকা। মিলপাড়ের মোকলেছ আলোম, রাজারহাটের রুহুল আমিন, নাগেশ্বরীর আমিনুল ও বজরা এলাকার রেজাউল করিম জানান, আমাদের কাছ থেকে জনপ্রতি ২’শ টাকা করে ভাড়া নেয়া হয়েছে।

যাত্রীদের অভিযোগ, চিলমারী-রৌমারী ও রাজিবপুর নৌপথে যাত্রীদের একপ্রকার জিম্মি করে ভাড়া আদায় করা হয়। প্রতিবাদ করলে নানা ধরণের হয়রানীর শিকার হতে হয় তাদের।

ঘাট ইজারাদার মো. লিপু মিয়া বলেন, করোনাকালীন নৌকার সিরিয়াল নেই। এর ফলে যাত্রীরা নিজ উদ্যোগে ১০/১২ জন একটা নৌকা ভাড়া নিয়ে পারাপার হচ্ছে। এতে ভাড়া একটু বেশী হচ্ছে। যাত্রীদের অভিযোগ, সারাদেশে সকল ধরনের যানবাহন চললেও ঘাটে চলছে না সিরিয়ালের নৌকা। নতুন ফাঁদ পেতে অতিরিক্তি টাকা ভাড়া আদায় করছেন অসাধু ঘাট ইজারাদাররা। এ দিকে নৌ পথের যাত্রীরা নৌকার অতিরিক্ত ভাড়া থেকে বাচতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সরকারি কোন নিয়ম নেই, আমি খবর নিয়ে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত
Theme Created By ThemesDealer.Com