শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ

জলঢাকায় আমন ধানের ক্ষেতে সবুজের হাসি

হাসানুজ্জামান সিদ্দিকী হাসান / ২৩ বার
আপডেট সময় শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

জলঢাকা নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর জলঢাকায় শরতের তালপাকা গরম ও হাল্কা হাওয়ায় দোল খাচ্ছে দিগন্ত জুড়ে আমন ধানের ক্ষেতে সবুজের হাসি। যা সবুজের চাদরে ঢাকা ধান ক্ষেত এক মনোরম দৃশ্য।
উপজেলায় এবারের মৌসুমে আমন ধানের বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষকেরা।
বৃহস্পতিবার সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে বিগত বছরগুলোতে আমন মৌসুমে প্রবল বৃষ্টি আর বন্যার সাথে লড়াই করে আমন ধান চাষ করলেও এবারের চিত্র ভিন্ন। মৌসুমের শুরুতে দেখা যায় নি বন্যার প্রভাব। চারা রোপনের পর পরই দফায় দফায় বৃষ্টি আর রোপন কৃত ধানের চারা কৃষকের নিবিড় পরিচর্যায় দ্রুত বেড়ে ওঠছে। তাই সবুজে ছেয়ে গেছে ধানের ক্ষেত। আর দিগন্ত জুড়ে সবুজের মাঝেই উকি দিচ্ছে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন।
কৃষকদের স্বপ্ন পুরনের মাধ্যমে ক্ষুধা মুক্ত, খাদ্যে স্বনির্ভর বাংলাদেশ বিনির্মানে নানা উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। কৃষি বিভাগের আন্তরিকতায় কৃষি তে লেগেছে আধুনিকতার ছোয়া। উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ধান চাষের বিষয়ে এ প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় কৃষকের । কৃষকেরা জানান , গত বছরের তুলনায় এ বছর বৃষ্টিপাতের হার কম হওয়ায় ক্ষেতে সেচ দিয়ে ধানের চারা রোপন করেছি। এখন অবশ্য দুই একদিন পর বৃষ্টি হচ্ছে। ক্ষেতের অবস্থা আপাতত ভালোই দেখা যাচ্ছে।
উপজেলার কৈমারী ইউপির গাবরোল হাজীপাড়া গ্রামের কৃষক মমিনুর রহমান জানান আমরা কৃষি অফিসের পরামর্শ মত আমন ধানের বীজ বপন,ও চারা রোপন করেছি
চার বিঘা জমিতে। এবার ধান লাগার সময় আকাশের তেমন বৃষ্টি হয়নি। তারপরেও বর্তমানে ক্ষেতের চেহারা সবুজে ভরে গেছে। আশা করি বিগত বছরগুলোর চেয়ে এবার বেশী ফসল ঘরে তুলতে পারবো।
দোলাপাড়া গ্রামের কৃষক কালিপদ রায় বলেন, ‘এবার তিন বিঘা জমিতে আমন ধানের আবাদ করেছি। আমি নিজেই ক্ষেতের পরিচর্যা করি। পাশাপাশি কিছু শ্রমিক নেওয়া লাগে। এ বছর আবহাওয়া আমাদের অনুকূলে থাকায় রোপনকৃত ধানের ক্ষেতের চেহারা যথেষ্ট ভালো। আশা করছি, ফলনও ভালো হবে।
উপজেলার ডাউয়াবারী ইউনিয়নের নেকবক্ত
গ্রামের কৃষক মোলায়েম বলেন পাঁচ বিঘা জমিতে আমন ধানের আবাদ করেছেন। এবার ভালো লাভের আশা আছে । এ বছর ধান চাষে আমার বিঘাপ্রতি খরচ হয়েছে প্রায় সাড়ে চার হাজার টাকা। আশা করছি,বিঘা প্রতি ১৫-২০ মণ করে ধান পাবো।
উপজেলা কৃষি অফিসার শাহাদাৎ হোসেন বলেন, জলঢাকায় এবার চলতি রোপা আমন মৌসুমে ৮ হাজার ৯ শত ৭০ হেক্টর জমিতে চাষ হচ্ছে তার মধ্যে হাইব্রিড ৩ হাজার ২ শত হেক্টর, উফশি ২ হাজার ৭শত হেক্টর , ও দেশী জাতের ৩ হাজার ৭০ হেক্টর জমিতে ধান চাষ হয়েছে। যা শতভাগ লক্ষমাত্রা পুরনো সক্ষম হবে।
তিনি আরো৷ জানিয়েছে, আবহাওয়া অনুকুলে থাকার কারনে রোগবালাই ও পোকামাকড়ের আক্রমণ না থাকায় ক্ষেতের অবস্থা বেশ ভলো ফলে এবার ধানের ফলন ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ধানের বর্তমান অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, কৃষকরা এবার লাভবান হবে।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com