শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ

জলঢাকায় পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন ব্যারিষ্টার. তুরিন আফরোজ

রিপোর্টারের নাম / ১৭ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২১

হাসানুজ্জামান সিদ্দিকী হাসান

জলঢাকা নীলফামারী প্রতিনিধি

নীলফামারীর জলঢাকায় হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবেক প্রসিকিউটর ও ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার তুরিন আফরোজ, এসময় তিনি বলেন, এই উৎসব বাংলাদেশের সার্বজনীন উৎসব। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা আপনাদের আনন্দের ভাগিদার হতে ছুটে এসেছি। আমরা অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে চলতে শিখেছি। তাই আমাদের উৎসবগুলোতে সবাই আমরা এক হয়ে উদযাপন করি।
বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নীতি আদর্শের কথা তুলে ধরে
ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ বলেছেন,
বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। জাতির পিতার ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত যে সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন ইনশাল্লাহ বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই বাংলাদেশই আমরা গড়ে তুলতে সক্ষম হবো। বুধবার বিকেল থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত শতাধিক মোটরসাইকেল বহর নিয়ে শারদীয় শুভেচ্ছা জানাতে উপজেলার বিভিন্ন
ইউনিয়নের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করে তিনি প্রতিটি পূজা মন্ডপে ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করেন। এছাড়াও জলঢাকা পৌরসভা ২৬ টি সহ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে এবার ১৮২ মণ্ডপ হওয়ায় নবমী পর্যন্ত পুজা মন্ডপ পরিদর্শন অব্যাহত থাকার কথা জানিয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ আরও বলেন, ধর্ম যার যার কিন্তু উৎসব সবার। বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ। বাংলাদেশে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলে আমরা এক এক হয়ে পথ চলি।
প্রত্যেকের ধর্মকে আমরা সম্মান করি, আমরা চাই আমাদের দেশে শান্তি বজায় থাকুক। এদেশে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক ও দুর্নীতি-এ ধরনের যেসব ব্যাধি দেশ, সমাজ এবং পরিবারকে নষ্ট করে পরিবারির জীবনকে অতিষ্ঠ করে, তা যেন না থাকে।
বাংলাদেশের উন্নতি এবং অগ্রগতি অব্যহত থাকবে এটাই আমরা চাই।

মহান মুক্তিযুদ্ধে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন,
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের সব ধর্মের মানুষ-হিন্দু, মুসলমান, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান এক হয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে যুদ্ধ করে বুকের রক্ত বিলিয়ে দিয়ে এই বাংলাদেশ স্বাধীন করেছে।
প্রত্যেক মানুষের মধ্যে যদি সহনশীলতা থাকে এবং একে অপরের প্রতি সম্মান ও সহানুভূতি থাকে সেটাই এ দেশকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে পারে এবং তবেই দেশ উন্নত ও সমৃদ্ধশালী হতে পারে।

পুজা মন্ডপ পরিদর্শনে সফর সঙ্গী হিসেবে সঙ্গে ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের প্রধান সমন্নয়ক এনামুল হক, সনাতন সম্প্রীতি সংঘের সভাপতি রণজিৎ রায়, সাধারণ সম্পাদক অনিল চন্দ্র রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক রঞ্জন কুমার রায়, শিক্ষক সংঘের সভাপতি অনিল কুমার রায় সাধারণ সম্পাদক সফিয়ার রহমান সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান,মিডিয়া বিভাগের প্রধান আবেদ আলী ও মুক্তিযুদ্ধ সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ান প্রামাণিক প্রমুখ





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com