- স্বাধীন বার্তা ২৪ - https://sadhinbarta24.com -

জাহালমের ক্ষতিপূরণের রায় স্থগিত চেয়েছে ব্রাক ব্যাংক

নরসিংদী প্রতিনিধি : দুদকের করা মামলায় বিনাদোষে ৩ বছর কারাভোগ করা নরসিংদীর ঘোড়াশাল বাংলাদেশ জুটমিলের শ্রমিক জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার যে রায় হাইকোর্ট দিয়েছিলেন তা স্থগিত চেয়েছে ব্র্যাক ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। আজ সোমবার (১৯ অক্টোবর) সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় রায় স্থগিতদের আবেদন করা হয়।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ জাহালমকে এক মাসের মধ্যে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে ব্র্যাক ব্যাংককে নির্দেশ দেন। রায় ঘোষণার পর এক প্রতিক্রিয়ায় জাহালম জানিয়েছিলেন দ্রুত সময়ের মধ্যে রায় বাস্তবায়ন দেখতে চাই। যারা আমার জন্য আইনি লড়াই করেছেন এবং যে সকল সাংবাদিক ভাই আমাকে নির্দোষ প্রমানে সহযোগিতা করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। হাইকোর্টের রায়ে আমি সন্তোষ প্রকাশ করছি।

সেই রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছিল, ব্যাংক কর্মকর্তারা নিজেদের বাঁচাতে যেনতেনভাবে তদন্ত করে আবু সালেককে না ধরে জাহালমকে ফাঁসিয়ে দিয়েছে। অনভিজ্ঞ কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া ছিল দুদকের বড় ভুল। জাহালমের মতো আর কাউকে যেন বিনাদোষে জেলখাটতে না হয় সে বিষয়ে শেষ বারের মতো দুদককে সতর্ক করেছে হাইকোর্ট।

৩৩ মামলায় “ভুল’ আসামি জেলে: ‘স্যার, আমি জাহালম, সালেক না” শিরোনামে গত বছরের ২৮ জানুয়ারি একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটি হাইকোর্টের নজরে আনা হয়। তারপর হাইকোর্টের ওই বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ আদেশ দেন।

ওই রুলে উল্লেখ করা হয়, প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী সোনালী ব্যাংকের ১৮ কোটি টাকা ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে দুদকের করা ৩৩ মামলায় তিন বছর ধরে কারাগারে আছে নিরপরাধ জাহালম। এই নিরপরাধ ব্যক্তিকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নিষ্ক্রিয়তার বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়।

এছাড়া জাহালমকে ক্ষতিপূরণ দিতেও কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও রুলে জানতে চাওয়া হয়। এরপর আদালতের নির্দেশে জাহালম গত বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি কারাগার থেকে মুক্তি পান। এরপর গত ১২ ফেব্রুয়ারি রুলের ওপর শুনানি শেষ হয়।