শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:১৮ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
দেশের সকল জেলা, থানা/উপজেলা/ইউনিয়ন এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে " স্বাধীন বার্তা ২৪ " এ চীফ রিপোর্টার, স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে আগ্রহী প্রার্থীরা আজই যোগাযোগ করুন bdsadhinbarta24@gmail.com । প্রিয় পাঠক আপনিও “ স্বাধীন বার্তা ২৪ ” নিউজকে পাঠাতে পারেন আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার কথা জানাতে পারেন আপনার অভিজ্ঞতা অথবা আপনিও হতে পারেন একজন সাংবাদিক । স্বাধীন বার্তা ২৪ এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ আমাদের সাথেই থাকুন
শিরোনামঃ

দিনরাত এক করে অনুদান দিয়ে বেড়াচ্ছে যশোর সদরের ইউপি চেয়ারম্যান আনিচুর রহমান

রিপোর্টারের নাম / ১০০৩ বার
আপডেট সময় শনিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২০




যশোর প্রতিনিধিঃ যশোর সদর উপজেলার ৮নং দেয়াড়া মডেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যার এর নাম আনিচুর রহমান। নভেল করোনা ভাইরাস রোধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ঘরে থাকুন ঘরে খাবার পৌঁছে দিবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা  এই লক্ষ্যে যশোর সদর উপজেলার ০৮ নম্বর দেয়াড়া মডেল ইউনিয়ন পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে ও গ্রামবাসীর অর্থায়নে এবং সরকারি অর্থায়নে ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে তার নিজ হাতে বাড়ি বাড়ি যেয়ে খাদ্য সামগ্রহী পৌছে দিচ্ছে আনিচুর রহমান। তার মানবিকথার কথা না বল্লে নউ।

তারি ধারাবাহিকতায় আজ আমদাবাদ গ্রামে  মধ্যবিত্ত ও  নিম্নবিত্ত ১২০ পরিবারকে খবার সামগ্রহী বিতরন করেন ইউপি চেয়ারম্যান জননেতা জনাব আনিছুর রহমান । এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ইউপি সচিব জনাব আক্তারুজ্জামান, ইউপি সদস্য সেলিম রেজা সহও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও নেতৃবৃন্দগন। আনিচুর রহমার তার ফেজবুকে এক ষ্ট্যাটাস দিয়ে বলেন আপনার বাড়ি খাবার না থাকলে আপনার লজ্জা পাওয়ার দরকার নেই আপনি আমার ফেজবুকে মেছেজ দেন আপনার বাড়ি পৌছে যাবে খাবার সামগ্রহী।কখনো দিনে আবার কখনো রাতের অন্ধকারে অসহায় মানুশের বাড়িতে যেয়ে নিজে পৌছে দিচ্ছে খাবার সামগ্রহী। আনিচুর রহমান আরো বলেন আমার ইউনিয়নের কেউ এই দূরদিনে না খেয়ে থাকবেনা আমি নিজে সকলের ঘরে খাবার পৌছে দিব কিন্তু আপনারা নিরপদে থাকুন কেউ দয়াকরে ঘর থেকে বের হবেননা এটাই আমার একমাত্র অনুরোধ।





আপনার মতামত লিখুন :

0 responses to “দিনরাত এক করে অনুদান দিয়ে বেড়াচ্ছে যশোর সদরের ইউপি চেয়ারম্যান আনিচুর রহমান”

  1. Farhan khan says:

    খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন ঘরে ঘরে কথাটা কিন্তু সত্য নয়। তিনি যে গ্রামে ত্রাণ দিচ্ছেন সেখানে কি মাত্র ৯০/১২০টি অসহায়,গরীর-দুঃখী পরিবারের বসবাস.??? মোটেও তা নয়। খোজ-খবর নিয়ে দেখুন এমন অনেক অসহা, গরীব-দুঃখী পরিবার ত্রাণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত







Theme Created By ThemesDealer.Com