শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ওই ২৪০ জনের কাউকে ছাড়ছি না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিজয় দিবসে দেশের সব মানুষকে শপথ করাবেন প্রধানমন্ত্রী শ্রীলেখার খোলামেলা ফটোশুটের ভিডিও ভাইরাল জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ১০নং হরিশংকরপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদ যশোরে অন্ত:স্বত্তা স্ত্রী হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদন্ড যশোরে ৬ তলা থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু যশোরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু খাজাঞ্চি পশ্চিম ইউনিয়ন আল ইসলাহ’র কমিটি: সভাপতি মোসাদ্দিক সম্পাদক নিজাম বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিশ্বনাথে লার্ণিং পয়েন্টের ১৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন চাঁদপুরে আনসার ভিডিপির বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা

নুরুল আলম ছিলেন নির্মোহ ও স্বচ্ছ রাজনীতিদ-খোরশেদ আলম সুজন

রিপোর্টারের নাম / ৬৭ বার
আপডেট সময় শুক্রবার, ৪ জুন, ২০২১, ১:৫৭ অপরাহ্ন

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য, সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও ৩৮নং ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার এবং বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি নুরুল আলম ছিলেন একজন নির্মোহ ও স্বচ্ছ রাজনীতিবিদ। আজ শুক্রবার (৪ জুন ২০২১ইং) সকালে মরহুমের ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে তার কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে দোয়া মোনাজাতকালে একথা বলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন। এ সময় সুজন বলেন ১৯৭৩ সাল থেকে নুরুল আলম ভাইয়ের সাথে আমার পরিচয়। দীর্ঘ সময় রাজনীতির মাঠে একসাথে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি তিনি ছিলেন অত্যন্ত ন্যায়নিষ্ট এবং দলের প্রতি ছিল তার অসাধারণ মমত্ববোধ। আওয়ামী লীগ বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক সরকারের নানারকম প্রলোভনেও তিনি দল ও আদর্শ থেকে কোনদিন বিচ্যুত হননি। দলের রাজনৈতিক যেকোন আন্দোলন কর্মসূচীতে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করতেন। রাজনীতির বাইরে সামাজিক আন্দোলনেও ছিল তাঁর একচ্ছত্র আধিপত্য। এফপিএবি, শহর সমাজসেবা প্রকল্প সমন্বয় পরিষদ, হালিশহর লাকী ক্লাব, মা ও শিশু হাসপাতাল, বেগমজান প্রাথমিক ও উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ, মাদরাসা এ তৈয়্যবিয়াসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত ছিলেন তিনি। ছাত্রলীগ বৃহত্তর ডবলমুরিং থানা শাখার সভাপতি এবং চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন নুরুল আলম। ১৯৯৬ এর অসহযোগ আন্দোলন এবং বন্দর অবরোধ আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা ছিল অপরিসীম। তিনি আমৃত্যু দলের একজন নিবেদিত প্রাণ নেতা ছিলেন।

উল্লেখ্য গতবছর এই দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেন এ গুণী রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক। সুজন মরহুমের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া কামনা করেন। অন্যান্যদের মধ্যে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. ইলিয়াছ, ৩৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এম. হাসান মুরাদ, সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. হাসান, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক মো. কামাল উদ্দিন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোরশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ কামরুল হোসেন, ৩৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাজী আবু নাছের, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. আকতারুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী হাসান মুন্না, সালাউদ্দিন বাদশা, এম. দিদারুল আলম, বরকত উল্ল্যাহ, সরওয়ার জাহান চৌধুরী, নুরুল হুদা, শাহেদ বশর, হাজী মো. হোসেন, নজরুল ইসলাম টিটু, হাজী ছালামত আলী, হাফেজ মো. ওকার উদ্দিন, ইকবাল আল নূরী, মো. শাহনেওয়াজ, মো. শাহজাহান, হাজী আনোয়ার হোসেন, মো. সোলায়মান, মরহুমের পুত্র শহীদুল আলম রাসেল, সালাউদ্দিন মামুন, মো. কাইয়ুম প্রমূখ।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com