রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০২ অপরাহ্ন

পদ্মাসেতুর সর্বশেষ রোড স্লাব বসছে যাচ্ছে আজ, পূর্ণাঙ্গ রূপ পাবে সড়কপথের

রিপোর্টারের নাম / ২২ বার
আপডেট সময় সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পদ্মাসেতুর ২৯১৭টি রোড স্লাব বসবে তার মধ্যে বাকি সর্বশেষ একটি আজ বসলেই , পূর্ণাঙ্গ রূপ পাবে সড়কপথ ধাপে ধাপে এগিয়ে চলেছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ। এবার এগিয়ে যাচ্ছে আরও একধাপ।

সেতুর রেলওয়ে স্লাব বাসানোর পর এবার শেষ হতে যাচ্ছে রোডওয়ে স্লাব বসানোর কাজও। ফলে ছয় দশমিক ১-৫ কিলোমিটার সেতুতে পূর্ণাঙ্গ রূপ পেতে যাচ্ছে সড়কপথ। সেতুর মোট দুই হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্লাবের মধ্যে বসানো হয়েছে দুই হাজার ৯১৪টি।

বাকি মাত্র তিনটি স্লাব বসানোর কাজ। যার মধ্যে রাতেই বসানো হয়েছে দুটি স্লাব। আর আজ সোমবার (২৩ আগস্ট) সকালের মধ্যে সম্পন্ন হবে একটি । অর্থাৎ আজ শেষ হচ্ছে পদ্মা সেতুর রোডওয়ে স্লাব বসানোর কাজ।

রোববার (২২ আগস্ট) রাতে পদ্মা সেতু প্রকল্পের মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের বলেন, শেষ তিনটি রোডওয়ে স্লাব বসানোর কাজ বাকি আছে। সেতুর ১২ ও ১৩নং পিলারের স্প্যানে শেষ তিনটি রোডওয়ে স্লাব বসানো হবে।

এর মধ্যে দুটি স্লাব বসানো হয়। সর্বশেষ একটি রোডওয়ে স্লাব আজ সকালে বসানো হবে। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ৯টার মধ্যে শেষ রোডওয়ে স্লাবটি বসানোর প্রস্তুতি রয়েছে সকাল থেকে।

এর আগে চলতি বছরের ২০ জুন শেষ হয়েছিল দ্বিতল সেতুর রেলওয়ে স্লাব বসানোর কাজ। সেতু প্রকল্পের প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন, চলতি বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত সেতু প্রকল্পের সার্বিক কাজ এগিয়েছে ৮৭ দশমিক ২৫ শতাংশ।

আর মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ২৫ শতাংশ। অর্থাৎ মূল সেতুর কাজের আর বাকি মাত্র ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়।

২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর একে একে ৪২টি পিলারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসানো হয়।

২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু পুরোপুরি দৃশ্যমান হয়েছিল। একইসঙ্গে চলতে থাকে রোডওয়ে ও রেলওয়ে স্ল্যাব বসানোসহ অন্যান্য কাজ।

২০২২ সালের জুন মাসের মধ্যেই পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার কথা রয়েছে। দেশ ও জাতির স্বপ্ন সম্ভবের বহুল কাঙ্ক্ষিত এই পদ্মা সেতুর সর্বশেষ কাঠামো ডাংঙ্গার অংশে যুক্ত হয়ে আজ পদ্মার দুই পাড় একাকার।

মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি ৯৫ দশমিক ২৫ শতাংশের বেশি ও আর্থিক অগ্রগতি (ব্যয়) ৯০ দশমিক ১৮ শতাংশ। মূল সেতুর কাজের চুক্তিমূল্য প্রায় ১২ হাজার ৪৯৪ কোটি টাকা। চলতি বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে প্রায় ১১ হাজার ২৬৮ কোটি টাকা।

আগামী ১১ মাসের মধ্যে মূল সেতুর বাকি কাজ সম্পন্ন করতে হবে প্রায় ১ হাজার ২২৭ কোটি টাকা দিয়ে। মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত
Theme Created By ThemesDealer.Com