মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০২:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ

সাতক্ষীরার টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও প্রাণসায়ের খাল খননে অনিয়ম-দূর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন

আজহারুল ইসলাম সাদী / ৬৪ বার
আপডেট সময় বুধবার, ২ জুন, ২০২১, ১:৫৪ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টারঃ সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চলে টেকসই বেঁড়িবাঁধ নির্মাণ ও প্রাণ সায়ের খাল খননে চরম অনিয়ম দূর্নিতীর প্রতিবাদে মানববন্ধন পালিত হয়েছে।বুধবার (২ জুন) বেলা ১১টায় জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির আয়োজনে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে উক্ত মানববন্ধন কর্মসুচিতে, সংগঠনটির সভাপতি ও দৈনিক দৃষ্টিপাত সম্পাদক জি.এম নুর ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সুজন, সাবেক সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবক আলহাজ্ব ডা.আবুল কালাম বাবলা, অধ্যাপক মোজাম্মেল হোসেন, কাজী শওকত হোসেন ময়না, পৌর কাউন্সিলর ফারহা দীবা খান সাথী, সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বাবু, যুগ্ম সম্পাদিকা ফরিদা আক্তার বিউটি, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জ্যোৎস্না আরা প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, “সাতক্ষীরা উপকূলে প্রতিবছর বেড়িবাঁধ ভেঙে হাজার হাজার বিঘা মৎস্য ঘের ও ফসলি জমি তলিয়ে যায় ও শত শত মানুষের ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং উপকূলের ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় মানুষ পথে বসে। ক্ষতিগ্রস্তের অজুহাতে বাজেট হলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা পকেট ভরেন, ঠিকমতো কাজ না করে। পানি উন্নয়ন বোর্ড চাননা টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ হোক। তারা চান প্রতিবছর বেড়ি বাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে তা সংস্কারে নামে বরাদ্ধ আসুক এবং তাদের পকেট ভারী হোক। এ যাবৎকাল উপকূলের বেড়িবাঁধ সংস্কারে যে বরাদ্দ এসেছে তা হরিলুট হয়েছে। বক্তারা এ সময় তদন্তপূর্বক পানি উন্নয়ন বোর্ডের অসাধু দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবী জানান।

বক্তারা আরো বলেন, সাতক্ষীরা শহরের মাঝ দিয়ে প্রবাহিত প্রান সায়ের খাল খননের নামে চলছে চরম অনিয়ম ও দূর্নীতি, লুটপাট করা হয়েছে কোটি কোটি টাকা। সিডিউল অনুযায়ী এই খাল খনন করা হয়নি। খাল খনন শেষ হওয়ার আগেই তড়িঘড়ি করে খালে পানি ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। খাল খননে অনিয়ম-দূর্নীতি ঢাকতে খালে আলোক সজ্জা ও নৌকা ভাসানো হয়েছে। বক্তারা এ সময় খাল পূণঃখনন ও খননে অনিয়ম-দূর্নীতিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন এবং ঠিকাদারের বিল বন্ধ করে দেয়ার জোর দাবী জানান। একইসাথে তারা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনেরও দাবী জানান।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com