বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
সাতক্ষীরায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাসের হেলপার নিহত ইসকন মন্দিরে হামলা,র‌্যাবের অভিযানে আটক আরো- ৯ রাজাপুরের গৃহহীন ১১৭টি পরিবার পেল দালান ঘর কেবিষ্ট এন্ড ড্রাগিষ্টস সমিতির উপলক্ষে আলহাজ্ব ডাঃ আব্দুল হাই সরকারের স্মরণ সভা নলছিটিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার্থে বিশেষ আইনশৃঙ্খলা সভা সারাদেশে সনাতনী ধর্মাবলম্বীদের উপর হামলা, হত্যা অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন বন্যার্তদের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যানের বাপ্পি ত্রাণ বিতরণ জেলা ছাত্রলীগের কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে বিশ্বনাথে উপজেলা ছাত্রলীগ বাংলাদেশের ওপর থেকে ভিসা নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ফের পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে মোটরসাইকেলে আগুন

সেতুমন্ত্রীর এলাকায় আ.লীগের কোন কার্যালয় নেই এতে ভাবমূর্তি নষ্ট হয়

নোয়াখালী প্রতিনিধি / ১৩৫ বার
আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৩ আগস্ট, ২০২১

মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনঃ বাংলাদেশ আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগনে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু বলেছেন, আমাদের নেতা ওবায়দুল কাদের।

সারা জীবনে সততায় সমৃদ্ধ রাজনৈতিক জীবন যার, তার নির্বাচনী এলাকায় এ ধরনের অপরাজনীতি অনভিপ্রেত এবং অগ্রহণযোগ্য।

এ বিষয়ে বার বার দাবি করেও আমরা কোন সমস্যার সমাধান পাইনি। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের দুইজন ভাইস চেয়ারম্যান তাদের চেয়ারে বসে অফিস করতে পারেনা। ২০০৮ সাল থেকে থেকে এখানে কে কমিশন বাণিজ্য করেছে?

গতকাল সোমবার (২ আগস্ট) রাত ৯টায় নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগ ওবায়দুল কাদেরের সাথে আছে এবং জেলা আ.লীগের নির্দেশে গঠনতন্ত্র মোতাবেক কার্যক্রম চালাবে। কোন ব্যক্তির ইশারায়, কোন ব্যক্তির নির্দেশে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগ কোন ব্যক্তির সম্পদে পরিণত হবেনা।

দুই একজন মানুষের লোভের কারণে ওবায়দুল কাদের ও দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। এটি থেকে আপনার বের হওয়া উচিত। আমরা ছোট মানুষ আপনাকে পরামর্শ দেওয়ার যোগ্যতা ও সাহস কোনটাই আমরা রাখিনা। আমরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি।

এ সময় মঞ্জু প্রশ্ন রাখেন? কাদের মির্জা এখন যুক্তরাষ্ট্রে। পৌরসভায় যে সকল সশন্ত্র সন্ত্রাসী অবস্থান করছে। পুলিশ তাদের নিরাপত্তা দিয়ে রেখেছে? এটি কিসের আলামত। তারা কাকে নিরাপত্তা দিচ্ছে। এ থেকে কি বুঝা যায়। এ থেকে সাধারণ মানুষের কাছে কি ম্যাসেজ যাচ্ছে।

যে সকল সন্ত্রাসী মা-বোনের ইজ্জত নষ্ট করেছে, লাইভে এসে মা-বোনকে গালি দিয়েছে, পৌরসভার তিনতলা থেকে বের হয়ে বিভিন্ন জায়গায় হামলা করেছে এবং মানুষের হাত-পা ভেঙ্গেছে।

তাদেরকে পৌরসভায় রেখে পুলিশী নিরাপত্তা দেওয়া কি কোন সভ্য সমাজের কাজ। দেশে কি কোন আইনের শাসন নেই। তাহলে কেন পুলিশ তাদেরকে সেখানে পাহারা দিয়ে রেখেছে।

তিনি আরও বলেন, মন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি। আপনার এলাকায় আ.লীগের অফিসটা আপনার ভাই ভেঙ্গে চুরে নিয়ে গেছে। আপনার এলাকায় আ.লীগের কোন কার্যালয় নেই। কার্যালয় করতে গিয়ে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আপনার ভাইয়ের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছে।

সেই থেকে আমার বাসায় আ.লীগের কার্যক্রম পরিচালিত হয়। আপনি আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এখানে কার্যালয় থাকবেনা কেন। আমরা মিটিং করতে গেলে প্রশাসন নানান কথা বলে। কিন্তু করোনার মধ্যে পৌরসভা হলরুমে মিটিং গুলো কিভাবে হয়। আপনার বাড়ির সামনে বোমা পাঠানোর নাটক সৃষ্টি করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জে আ.লীগের একটি কার্যালয় প্রতিষ্ঠার সুযোগ করে দেন। এখানে কার্যালয় না থাকলে আপনারই ভাবমূর্তি নষ্ট হয়।





আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত




Theme Created By ThemesDealer.Com