রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০৫ অপরাহ্ন

কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ও মানব বন্ধন

নোয়াখালী প্রতিনিধি / ১৫৩ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১

মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনঃ নোয়াখালীতে দুই ছেলেকে রহস্যজনক ভাবে গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলা দেয়ার প্রতিবাদে মেঘনা নদীর কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ও মানব বন্ধন করেছে ভূক্তভোগি পরিবার ও জেলেরা। ১৫ জুলাই স্থানীয় টাংকি বাজারে সকালে এ সাংবাদিক সম্মেলন ও মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।

সংবাদ সম্মেলনে আবদুর রব ব্যাপারীর মেয়ে জান্নাত আক্তার জানান, তার বাবা আবদুর রব ব্যাপারী একজন মাছ ব্যবসায়ী, দানবীর ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক। তিনি দীর্ঘ ২০ বছর যাবত টাংকি বাজার মাছ ঘাটে ব্যবসা করার পাশাপাশি একজন বিশিষ্ট সমাজ সেবক হিসেবে কাজ আসছেন। এছাড়াও তিনি দীর্ঘ দিন ধরে টাংকি বাজার মাছ ঘাট ও বাজার কমিটির সভাপতি এবং টাংকি বাজার মসজিদ, মাদ্রাসা ও এতিম খানার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

আরও পড়ুন>> বিএনপি একটি জনবিচ্ছিন্ন দল

উক্ত মাছ ঘাটের জেলে ও মাছ ব্যবসায়ীদের যে কোন সমস্যায় তিনি সব সময় তাদের পাশে দাড়ান। এলাকায় উনার এসব কর্মকান্ডে ব্যাপক সুনাম রয়েছে । এমতাবস্থায় মেঘনা নদীর ভোলা জোন কোস্ট গার্ড কর্মকর্তা লেঃ এস.এম. তাহসিন রহমান (এক্স), বিএন, পরিচিত নং-৩১৩২ ও সিজি স্টেশন হাতিয়া কোস্টগার্ড কর্মকর্তা লেঃ এ.এস.এম.লুৎফর রহমান (এক্স) বিএন, পরিচিতি নং-২৮৫৮ মাছ ব্যবসায়ী আবদুর রব ব্যাপারীর কাছে বিশাল অঙ্কের মাসিক চাঁদা দাবী করে আসছে ।

তিনি কোস্ট গার্ড কর্মকর্তাদের চাঁদা দিতে পারবেননা বলে নিষেধ করে দেন ।এতে কোস্ট গার্ড ক্ষিপ্ত হয়ে আবদুর রব ব্যাপারীকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী ও গ্রেফতারের পায়তারা করে আসছিলো ।

আরও পড়ুন>> বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় হত্যা

এ পায়তারার অংশ হিসেবে উল্লেখিত কোস্ট গার্ড দল গত ৯ জুলাই শুক্রবার রাত অনুমানিক ৪ ঘটিকার সময় আবদুর রব ব্যাপারী ও তার দুই ছেলে স্থানীয় হাতিয়া জনকল্যান শিক্ষা ট্রাষ্ট হাই স্কুলের এস,এস,সি পরিক্ষার্থী মোঃ রহিম ও একই বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মোঃ রবিনকে টাংকি বাজার পুলিশ ক্যাম্পের পাশে অবস্থিত আবদুর রব ব্যাপারীর নিজ বাড়ীর বসত ঘরের দরজা ভেঙ্গে থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় ঘর থেকে তাদেরকে রহস্যজনক ভাবে গ্রেফতার করে মারধর করে। এ সময় জেলে ও মাছ ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ করলে কোস্ট গার্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে জনগণকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা করে। এ পরিস্থিতিতে সাধারন জনগনের প্রাণ রক্ষার্থে আবদুর রব ব্যাপারী সেচ্ছায় কোস্ট গার্ড সদস্যদের সাথে চলে যেতে বাধ্য হয়।

আরও পড়ুন>> রংপুর বিভাগে করোনায় বাড়ছে মৃত্যু ও সংক্রমণ

কোস্ট গার্ডের সদস্যরা যেখান থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করেছে তা রাগমতি উপজেলার চরগাজী ইউনিয়নের অংশ। নিয়ম অনুযায়ী তারা গ্রেফতারকৃতদেরকে লক্ষীপুর জেলার রামগতি থানাতে হস্তান্তর করার কথা। কিন্ত তারা তা না করে নোয়াখালী জেলার হাতিয়া থানায় তাদেরকে সোপর্দ করে। শুধু তাই নয় কোস্টগার্ড ঘটনাটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য মেঘনা নদীতে ডাকাতির প্রস্তুুতি কালে অস্ত্রসহ আবদুর রব ব্যাপারী ও হাই স্কুল পডুয়া দুই ছেলেকে কোস্ট গার্ড গ্রেফতার করে বলে হাতিয়া থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে কোস্টগার্ড সদস্য আশরাফুল ইসলাম, যাহার পরিচিতি নং ইএ-৪, এনআইডি-১৫৯২০৩৯৮৮৮৭৭৫।

সংবাদ সম্মেলনে কোস্ট গার্ডের এ সাজানো গ্রেফতার নাটকের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মিথ্যা মামলার আসামীদের নি:শ্বর্ত মুক্তি দাবী করা হয়। সেই সাথে অভিযুক্ত কোস্টগার্ডদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবী করা হয়।

সংবাদ সম্মেলন শেষে টাংকি বাজারে ব্যবসায়ী ও জেলেরা একই দাবীতে মানব বন্ধন করে। মানববন্ধন এ বক্তব্য রাখেন, ব্যবসায়ী মাওলানা সফিক হুজুর, মো. জহির উদ্দিন, ৬নং ওয়ার্ড বাসিন্দা গ্রেফতার নাটকের প্রত্যক্ষদর্শী সিএনজি চালক মো আলা উদ্দিন, টাংকি বাজার বড় মসজিদের ইমাম ফজলুল হকসহ আরো অনেকে। এ মিথ্যা মামলায় ভুক্তভোগীদের গ্রেফতারের বিষয়ে হাতিয়া কোস্টগার্ড সিজি স্টেশান ও ভোলা কোস্টগার্ড কর্মকর্তারা কোন বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি গণমাধ্যম কর্মীদের নিকট।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত
Theme Created By ThemesDealer.Com